অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার কারণে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলাতে পারছেন না অনেকে

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার কারণে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলাতে পারছেন না অনেকে

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার কারণে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলাতে পারছেন না অনেকে

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে সব কেন্দ্রে ভোট হচ্ছে ইভিএমে। কিন্তু ভোট দিতে অনেক  নেতাকর্মীরা আঙুলের ছাপ মিলছে না। শনিবার সকাল ৮টায় ভোটকক্ষ ৫-এ ভোট দিতে আসেন। নেতা ইউসুফ কয়েকবার চেষ্টা করার পরও ভোট দিতে পারেননি। পরে আবার বেলা সাড়ে ১১টায় আসেন। তখনো ফিঙ্গার প্রিন্ট না মেলায় কান্নাকাটি করে তিনি কেন্দ্র থেকে বের হয়ে যায়। পরবর্তীতে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ইউসুফ ভোট কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন, কিন্ত অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের কারণে তার আঙ্গুলের ছাপ গুলো ঝাপসা হয়ে যায় ফলে ইভিএম তার আঙ্গুল আর চিনতে পারে না।

আবার মিরপুর আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ২৬ বছর বয়সী আরো একজন  কর্মী তার ফিঙ্গার প্রিন্ট না মেলায় ভোট না দিয়েই চলে গেছেন। তিনি বলেন, ‘হাত তো আগে থেকেই মারি কিন্তু কোনো দিন এমন হয় নাই। এহন এমন বিপদের সময় ভোট দিতে পারলাম না।’এছাড়াও বেশ কিছু কেন্দ্রে ভেসলিন থাকায়  কর্মীরা সেগুলো নিয়ে পালিয়ে যায়।

এমন ঘটনাতে,  কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নিপুন রায় চৌধুরী বলেন, আমারা এমন ঘটনায় অনেক লজ্জিত পরবর্তীতে আমাদের কর্মীদের এমন কোন সমসার সম্মুখীন না হতে হয় তার জন্য আমরা নারী কর্মীরা আমাদের সর্বস্ব দিয়ে তাদের সেবা করবো। যেন পরবর্তী তাদের এমন কোন হাত জনিত সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয়।

valo chele

Related Posts

leave a comment

Create Account



Log In Your Account